সর্বশেষ ব্রেকিংঃ-
Home » আন্তর্জাতিক » কাঁদলেন, কাঁদালেন মিশেল
capture

কাঁদলেন, কাঁদালেন মিশেল

‘আপনাদের ফার্স্ট লেডি হিসেবে থাকা আমার জীবনে সবচেয়ে বেশি সম্মানের বিষয় ছিল। আশা করি, আমি আপনাদের গর্বিত করতে পেরেছি।’

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্ত্রী মিশেল ওবামা কথাগুলো বলছিলেন। এ সময় আবেগে তাঁর কথা আটকে যাচ্ছিল। বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর রাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডির চোখে ছিল জল। এ সময় মঞ্চের পাশে থাকা অনেকেই চোখ মোছেন। টানা আট বছর হোয়াইট হাউসে থাকা হয়েছে। এখন ছেড়ে দিতে হবে। বিদায় বেলায় হোয়াইট হাউসে এটাই ছিল মিশেলের শেষ ভাষণ।

সিএনএন জানিয়েছে, ভাষণজুড়ে মিশেল কেবলই তারুণ্যের জয়গান গেয়েছেন। তরুণদের আহ্বান করেছেন এগিয়ে আসার জন্য। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতে ওই ভাষণ দেন ফার্স্ট লেডি।

মিশেল বলেন, ‘আমি চাই আমাদের তরুণরা জানুক তারা গুরুত্বপূর্ণ। আমাকে শুনতে পাচ্ছো তরুণরা? ভয় পেয়ো না, দৃঢ় হও, আশাবাদী হও, ক্ষমতাবান হও। শিক্ষা দিয়ে নিজেকে ক্ষমতাবান করো। দেশ গড়তে ওই শিক্ষা ব্যবহার করো। কখনো ভয় পেয়ো না।’

ফার্স্ট লেডি থাকার সময় হোয়াইট হাউসে শিক্ষাভিত্তিক অনেক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন মিশেল। হোয়াইট হাউসে গানের, নাটকের অনুষ্ঠান করেছেন। এসব অনুষ্ঠানে স্কুলের শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছেন।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প নারীদের নিয়ে একাধিক নেতিবাচক মন্তব্য করেন। মিশেল বরাবরই এসব বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেন।

মিশেল জানান, হোয়াইট হাউসের কর্মীদের কথা মনে থাকবে তাঁর।

শুক্রবারেই যে ফার্স্ট লেডি হিসেবে মিশেল জনসম্মুখে শেষবারের মতো এলেন তা কিন্তু নয়। বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় টক শো ‘দ্য টুনাইট শো উইথ জিমি ফ্যালন’-এ হাজির হবেন মিশেল। এটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী বুধবার।

২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগামী ২০ জানুয়ারি হোয়াইট হাউসে প্রবেশ করবেন ট্রাম্প। তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প হয়ে যাচ্ছেন ফার্স্ট লেডি। ২০০৯ সালের ২০ জানুয়ারি বারাক ওবামার হাত ধরে হোয়াইট হাউসে প্রবেশ করেছিলেন মিশেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>